মানুষ যুদ্ধ চায়

ভেবেছিলাম মানুষ যুদ্ধ চায় না।

ভেবেছিলাম রাজনীতিকরাই আসলে যুদ্ধ চায়, তাই মানুষ মরে।

না।

আসলে মানুষ যুদ্ধ চায়। তারা মারতে চায়। তারা মরতে চায়, দলে দলে। বহু বছরের বিদ্বেস জমে জমে মানুষ যুদ্ধাগ্রহী হয়। এই আগ্রহ তাদের ধ্বংশ করে। কিছু লোক বিদ্বেস ছড়ায়, তাদের বেশিভাগই ভীতু। ভীতুরা ভয়ের কারনে বিদ্বেসী।

ছোটবেল অনেককেই দেখেছি- সাপ দেখলেই মারে। কেন মারে? কারন সে সাপকে ভয় পায়। “বিদ্বেস” আপনার কাছের মানুষকে সাপ ভাবতে শিখাবে। আপনি ভয়ে থাকবেন। আপনি স্বাভাবিকভাবে বাচতে পারবেন না।

নিজে দূরে থাকলে অন্যের মৃত্যু তার কাছে বিনোদন। এজন্যও মানুষ যুদ্ধ চায়। যুদ্ধের প্রতিক্রিয়াতে তার বা তার দেশের সমৃদ্ধি হতে পারে-এই ভেবেও মানুষ যুদ্ধ চায়।

বাংলাদেশের অনেকেই চায় ইন্ডিয়া-পাকিস্তান যুদ্ধ হোক।

এটার একটা কারন হলো-এই দুই দেশই বাংলাদেশকে দংশন করেছে-করছে।

আমি-আপনি মানবতা বিরোধী। সময়ে বুঝা যায়। অসময়ে বুঝা যায়।