আজ কি শিখলাম

আজ কি শিখলাম তা লিখে রাখার মাধ্যমে অনেক বড় কিছু তৈরী হওয়া সম্ভব।

আমার বেশ কিছু পুরানো লেখা দেখলে বুঝতে পারি সেই সময় আমি কি শিখেছিলাম। এখন হয়তো ভুলে গিয়েছি। নিজের লেখা থেকে আবার নিজে শিখেছি-এমন অনেক হয়েছে।

  • যারা ব্লগ লেখার আইডিয়া খুজে পায় না তাদের জন্য এটা একটা প্যাসন হতে পারে।
  • আবার যারা নতুন কিছু শিখতে যায় তাদের জন্য নতুন নতুন শিখাও হবে।
  • আর প্রতিটি শিখার বিষয় লিখতে গেলে আরেকটু ঘাটাঘাটি করতে হবে। আর তার জন্য আরেকটু শিখা হবে।

নিজের যোগ্যতা আরেকটু উচুতে নিতে হ-য-ব-র-ল শিখে গেলে হবে না। ধারাবাহিকভাবে শিখতে হবে। আর সেই শিখার বিষয়গুলো কিন্তু কোথাও লেখা থাকতেই পারে। তাই আমাকে আবার লিখতে হবে কেন? লেখা জিনিস আবার লেখা…

না।

শিখতে গিয়ে ছোট ছোট কিছু যায়গায় খটকা লেগে যায়। আর এই খটকায় আটকে সমনে এগোনো যায় না। সেগুলোতে হাইলাইট করে লেখা যেতে পারে। আরেকটু বিস্তারিত এবং নিজের জন্য লেখাটা লিখতে পারেন।

আর এই চেস্টাটা আমি করছি।

ছোট কোন একটা সমস্যা সমাধানের জন্য যে সার্চ দিচ্ছি সেটা শিখার পর সেই ট্যাগ দিয়ে নিজে পোস্ট লিখে ফেললে কেমন হয়?

 

 

শিক্ষার বিষয় নয় এমন বিষয়ের মধ্যেও মানুষের আকর্ষণ বেশি থাকতে পারে। সেটা দুই প্রকার- বিনোদন ও অভিজ্ঞতা। তার লিখিত রূপ নিজেকে ভবিষ্যতে মনে করিয়ে দিবে-নিজ আভিজ্ঞতার কথা।

নিজে পড়ার জন্যও লেখা যেতে পারে। নিজেকে নিজে শিক্ষা দেওয়ার জন্য।

189 total views, 1 views today