সব নায়কই একনায়ক

পৃথিবী শাসনের যতগুলো তন্ত্র বা সিস্টেম আছে সবগুলোই একনায়কতন্ত্র। যদিওবা আমরা মনে করি অনেক রকমের তন্ত্র আছে।

গণতন্ত্র হচ্ছে সবচেয়ে বড় একনায়কতন্ত্র।

এই কথাগুলো বিশ্বাস হচ্ছে না? যুক্তি চান? যুক্তি দিব।

একনায়কতন্ত্রে রাজার ইচ্ছানুয়ায়ী রাজ্য চলে। গণতন্ত্রেও তাই। বেশিভাগ লোক বা কেবিনেট সদস্য যদি কমভাগ লোকের উপর নিযার্তন চালানোর মতো আইন করে তাইলে বাধা দিবে কে? কমভাগ লোক চেয়ে চেয়ে দেখবে শুধু।

একনায়কের চেয়ে বেশি স্বেচ্ছাচারিতা সম্ভব এই গণতন্ত্র সিস্টেমে। এক নায়ক এখানে নিজে এক না, সবাই মিলে এক। তাই শক্তিও বেশি।

বাংলাদেশের গণতন্ত্রের চার-পাঁচটা সরকার দেখছি। বিরোধীরা বাড়িছাড়াই থাকে। বাসায় ঘুমাইতে পারে না। পুলিশ এসে কেস দিয়ে নিয়ে যায়। অনেকে নিজ সরকার বিরোধীদলে থাকলে বিদেশ থাকে। বরং একনায়ক সরকার থাকলে এর চেয়ে ভাল থাকা যেতো।

সমাজতন্ত্র বা ইসলামীতন্ত্রে নিজস্ব কিছু নিয়ম/পদ্ধতি আছে সেটার কম বেশি করে চলে। সেখানেও নায়কের ইচ্ছাই সব। তবুও একেবারে নিয়ম বর্হিভুত কিছু করতে পারে না। কিন্তু গণতন্ত্রে এরকম কিছু নাই। বেশিভাগ সদস্য বিরোধীদের উপর মারমুখি হবে এটাই স্বাভাবিক।

ছোটবেলা পড়েছি “গণতন্ত্রে জনগণের ইচ্ছায় দেশ চলে” টাইপের কথা। আসলেই কি তা? শুধু কেবিনেট সদস্য সিলেক্ট করাপ পর একটা একনায়কের হাতে দেশকে তুলে দেওয়া হয়। এমন হাজার হাজার আইন পাস হয়েছে যা বেশিভাগ জনগণ চাইতো না কিন্তু বেশিভাগ সংসদ সদস্য চাওয়ায় পাস হয়েছে।

ডিক্টরশীপের বিরোধীতা যারা করে তাদের প্রথম গণতন্ত্রের বিরোধীতা করা উচিৎ।

screen-shot-2012-03-16-at-2-05-48-pm